Below Header Banner Area
Above Article Banner Area

হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে ড্র করেই মাঠ ছাড়ল ইস্টবেঙ্গল

ফুটবলে একটি প্রচলিত কথা রয়েছে, এক গোলের ব্যবধান কখনওই সুরক্ষিত নয়। আর ময়দানের সেই প্রচলিত কথাই সত্যি হল শুক্রবার রাতে | হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে নির্ধারিত ৯০ মিনিট পর্যন্ত ১ গোলে এগিয়ে থাকলেও অতিরিক্ত সময়ের শুরুতেই ড্র করেই মাঠ ছাড়ল এসসি ইস্টবেঙ্গল তিন পয়েন্টের জায়গায় এক পয়েন্ট পেয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হল তাদের। ফলে প্লে-অফে যাওয়ার আশাও কার্যত শেষ হয়ে গেল লাল-হলুদের।তবে এদিনও কিন্তু রেফারিং নিয়ে একাধিক প্রশ্নও উঠেছে।
হারলেই প্লে-অফের সমস্ত আশা শেষ হয়ে যাবে। এই পরিস্থিতিতে হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে প্রথম একাদশে কোনও পরিবর্তনই করেনি এসসি ইস্টবেঙ্গল। অর্থাত্‍ জামশেদপুরের বিরুদ্ধে মাঠে নামা দলটিই এদিন নামিয়েছিল লাল-হলুদ ব্রিগেড। ম্যাচের শুরু থেকেই অবশ্য মাঝমাঠ দখলের লড়াই শুরু করে দেয় দু’দল। তবে হায়দরাবাদ ধীরে ধীরে ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে তুলে নেয়। গোটা প্রথমার্ধ জু়ড়ে তাঁরা আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকলেও বেশ আঁটসাঁট ছিল লাল-হলুদ রক্ষণ। ফলে কোনও বিপদ ঘটেনি। এছাড়া তেকাঠির নিচে ম্যাচের প্রথম মিনিট থেকেই অনবদ্য ছিলেন সুব্রত পালও। ২০ মিনিটের মাথাতেই দুরন্ত একটি সেভ করেন ‘স্পাইডারম্যান’। এরপরও হায়দরাবাদের আক্রমণ বহাল ছিল। কিন্তু কোনও গোল আসেনি।
[4:35 PM, 2/13/2021] Svo P/W: প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই কাঙ্খিত গোলটি পেয়ে যায় এসসি ইস্টবেঙ্গল। এই অর্ধে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক হতে শুরু করেন মাঘোমা-স্টেইনম্যান-পিলকিংটন-ব্রাইটরা। আর তারই ফলস্বরূপ ৫৯ মিনিটে ব্রাইটের দুরন্ত গোল। প্রথম দু’টি ম্যাচে দু’গোল করেছিলেন। কিন্তু তারপর থেকে তাঁর নামের পাশে কোনও গোল ছিল না। কিন্তু এদিন কাউন্টার অ্যাটাকে টুর্নামেন্টে নিজের তৃতীয় গোলটি করেন ব্রাইট। তবে পিলকিংটনের পাসটিও ছিল যথেষ্ট প্রশংসনীয়। এরপর আরও একটি গোল করতে পারত এসসি ইস্টবেঙ্গল। ৮২ মিনিটে বক্সের মধ্যে ব্রাইটকে হায়দরাবাদের গোলকিপার কাট্টিমনি ফাউল করেন। কিন্তু রেফারি অজিত মিতেই পেনাল্টির দাবি নাকচ করে দেন। আর এরপরই অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটেই আরিদানের গোল। লাল-হলুদ রক্ষণের ভুলে গোলটি করে যান তিনি। শেষমুহূর্তে হায়দরাবাদের একজন খেলোয়াড় লাল কার্ড দেখলেও তাতে তেমন সুবিধা করতে পারেনি এসসি ইস্টবেঙ্গল।

এই ম্যাচ ড্র করায় প্লে-অফে যাওয়ার আশা কার্যত শেষই হয়ে গেল এসসি ইস্টবেঙ্গলের জন্য। ১৭ ম্যাচ খেলে রবি ফাউলারের ছেলেদের পয়েন্ট রইল ১৭। অন্যদিকে, ১৭ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে তিন নম্বরে রইল হায়দরাবাদ

There is a saying in football, one goal difference is never safe. And the usual saying of Maidan is true on Friday night Despite taking a 1-goal lead against Hyderabad in the allotted 90 minutes, SC East Bengal left the field with a draw at the start of extra time to be content with one point instead of three. As a result, the hopes of going to the play-offs were practically ended by the red-yellows.
All hopes of a play-off will be lost. In this situation, SC East Bengal did not make any change in the first XI against Hyderabad. In other words, the team that came on the field against Jamshedpur was the one that brought down the red-yellow brigade. From the beginning of the match, however, the two teams started fighting for possession of the midfield. However, Hyderabad slowly took the rush of the match in their hands. Throughout the first half, they played offensive football, but the red-yellow defense was quite tight. As a result, no danger occurred. Besides, Subrata Pal was also impeccable from the first minute of the match under Tekathi. ‘Spiderman’ made a great save in 20 minutes. Even then the attack on Hyderabad was in force. But no goal came.
Despite being goalless in the first half, SC East Bengal got the desired goal early in the second half. The Maghoma-Steinman-Pilkington-Brightens started to be aggressive from the beginning of this half. And as a result, Bright scored a great goal in the 59th minute. He scored two goals in the first two matches. But since then there has been no goal next to his name. But on this day, Bright scored his third goal in the counter-attack tournament. But Pilkington’s pass was also quite admirable. Then SC East Bengal could have scored another goal. In the 62nd minute, Bright was fouled by Hyderabad goalkeeper Kattimani in the box. But referee Ajit Mitei rejected the penalty claim. And then Aridan’s goal in the first minute of extra time. He forgot the red-yellow defense and scored the goal. At the last minute, a Hyderabad player saw a red card but SC East Bengal could not take advantage of it.

With the draw of this match, the hopes of going to the play-offs were practically gone for SC East Bengal. Robbie Fowler’s boys had 16 points after playing 18 matches. On the other hand, Hyderabad is at number three in the league table with 24 points in 16 matches.

Below Article Banner Area

About Desk

Check Also

JIS Group organizes free of cost vaccination drive for everyone

JIS Group’s free-of-cost onsite vaccination drive has started today at Narula Institute of Technology campus …

Bottom Banner Area