Below Header Banner Area
Above Article Banner Area

বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন কলকাতার মোহরকুঞ্জে ১০ দিনব্যাপি ৮ম বাংলাদেশ বইমেলা উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন

কলকাতা, ৩১ অক্টোবর ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার।

কলকাতায় বাংলাদেশ বইমেলার উদেশ্য হচ্ছে, বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের মানুষের মধ্যে সেতুবন্ধন সৃষ্টি করা। যাতে পশ্চিমবঙ্গের মানুষ বাংলাদেশের লেখকদের বই সহজে এবং সুলভ মূল্যে কিনতে ও পড়তে পারে: বাংলাদেশ ও
পশ্চিমবঙ্গের শিল্পীদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনাও যেন উপভোগ করার সুযোগ পায়; এছাড়া বাংলা সাহিত্যের বিভিন্ন শাখার স্বরূপ সম্পর্কেও যেন জ্ঞান অর্জন করতে পারে মেলায় আগত ক্রেতাপাঠকরা। আশা করা হচ্ছে, প্রতিবারের মতো এবারের বাংলাদেশ আয়োজনও ভাষা ও বইমেলার বাংলা সংস্কৃতির একটি বিশিষ্ট পর্ব হিসেবে সকলের মনে স্থান করে। কলকাতার মোহরকুঞ্জ প্রাঙ্গণে (রবীন্দ্রসদনের পশ্চিমে) ‘৮ম বাংলাদেশ বইমেলা কলকাতা ২০১৮ বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো, কলকাতাস্থ বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন এবং বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি-এর যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ৩২ নভেম্বর ২০১৮, শুক্রবার, বিকেল ৪.০০ টায় মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মাননীয় অর্থমন্ত্রী জনাব আবুল মাল আবদুল মুহিত, এমপি।
সম্মাননীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, মাননীয় বিদ্যুৎ মন্ত্রীপশ্চিমবঙ্গ সরকার,
এী দেবাশিস কুমার, মেয়র পারিষদ, কলকাতা পুরসভাঅধ্যাপক শামসুজামান খান, লেখক, গবেষক ও সাবেক মহাপরিচালক, বাংলা একাডেমি । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন, অধ্যাপক ড, রতন সিদ্দিকী, প্রাবন্ধিক ও
গবেষক, শ্ৰী ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায়, সম্পাদক, পাবলিশার্স অ্যান্ড বুকসেলার্স গিল্ড। শুভেচ্ছা বক্তব্য ও ধন্যবাদ জানাবেন,
জনাব ফরিদ আহমেদ, সভাপতি, বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি এবং জনাব। মনিরুল হক, নির্বাহী।
পরিচালক, বাংলাদেশ আন ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি। এ বইমেলা চলবে প্রতিদিন দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত,
শনি ও রবিবার দুপুর ২টা থেকে রাত ৮:৩০ টা পর্যন্ত। এ ছাড়া দশ দিনব্যাপি বইমেলায় বিভিন্ন পর্যায়ে উপস্থিত থাকবেন, অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ (প্রতিষ্ঠাতা
সভাপতি, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্ৰ), অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, ইতিহাসবিদ ড. মুনতাসীর মামুন, কথাসাহিত্যিক
মঈনুল আহসান সাবের, শিশুসাহিত্যিক আলী ইমাম, কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন, কবি কামাল চৌধুরীকবি
মারুফুল ইসলাম, কবি তুষার দাশ, ছড়াকার আসলাম সানী ও স, ম, শামসুল আলম, কবি তারিক সুজাত, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব
সুভাষ সিংহ রায়, আমীরুল ইসলাম ও তুষার আবদুল্লাহ এবং কালি ও কলম সম্পাদক আবুল হাসনাত প্রমুখ।

পশ্চিমবঙ্গের বুদ্ধিজীবী ও কবি-সাহিত্যিকদের মধ্যে উপস্থিত থাকবেন পবিত্র সরকার, সমরেশ মজুমদার, ড, ইমানুল হক, পবিত্র মুখোপাধ্যায়, মৃণাল বসুচৌধুরী, দীপ মুখোপাধ্যায়, অধ্যাপক অশোকেন্দ্র সেনগুপ্তড. রাজ্যেশ্বর সিনহাদেবাশিস ভট্টাচার্য, আশিস চট্টোপাধ্যায়, অমল সরকার, ড, স্বপন বসু, জাতীয় অধ্যাপক জয়ন্ত কুমার রায়, সুবেন্দু রওন প্রমুখ।

এ বইমেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন, বাংলাদেশের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একটি মনোজ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। এতে অংশগ্রহণ করবেন বাংলাদেশ
ও পশ্চিমবঙ্গের বিশিষ্ট শিল্পীরা । গান পরিবেশন করবেন বাংলাদেশের বিশিষ্ট শিল্পী ফাতেমাতুজ জোহরা, কেন্দ্র সঙ্গীত
শিল্পী লিলি ইসলাম ও তানজিনা তমাশিল্পী অনিমা রায়, নাহিদ নাজিয়া। এ ছাড়া ০৫ নভেম্বর সন্ধ্যায় বিশেষ পরিবেশনা
করবে বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর শিশুশিল্পীরা। আরও থাকবে কাটোয়া সুদপুর বান্ধব সমিতি কর্তৃক রণপা নৃত্য পরিবেশন।

Below Article Banner Area

About Desk

Check Also

বহির্বিশ্বে কলকাতায় বাংলাদেশের প্রথম পতাকা উত্তোলন দিবস পালিত হলো

বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের পতাকা যে মিশনে প্রথম উত্তোলিত হয়েছিল ১৯৭১ সালের ১৮ এপ্রিল দুপুর ১২ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Bottom Banner Area