Below Header Banner Area
Above Article Banner Area

শিশুশ্রম যেখানে দন্ডনিয় অপরাধ সেখানে অভাবের জন্য ৭বছরের শিশুকে টানতে হচ্ছে ভ্যানরিক্সা

বর্তমান যুগে আমরা সবাই জানি যে শিশু শ্রমিক অর্থাৎ একটি ফুলের শিশুকে শ্রমিকে রূপান্তরিত করা দণ্ডনীয় অপরাধ,
মূলত কোন পিতা-মাতা চায় না যে তার শিশু শ্রমিকে পরিণত হোক, কিন্তু শুধুমাত্র খাদ্যের অভাব ঘিরেই তৈরি হয় একটি শিশুর উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কে বিসর্জন দিয়ে গায়ে গতরে খেটে পয়সা অর্জনের মাধ্যমে মেহনতী হয়ে ওঠার কাহিনী, সরকারের পক্ষ থেকে সমস্ত সুবিধা থাকার সত্বেও তাদের কাছে যে সুবিধা যথাযথভাবে পৌঁছায় না, ফলতো তারা ফেঁসে যাচ্ছে এক অবাক পরিশ্রমি মায়াজালে,
হয়তো তাদের বাবা-মায়ের সুবিধার্থে তারা বেছে নিয়েছে এ পয়সা উপার্জনের পথ ।যে পথে পয়সা কম আঘাত বেশি,ফলে তাদের কাছ থেকে বিদায় নেয় তাদের সমস্ত খেলাধুলা আনন্দ কাদা মাখা শিশুবেলা এবং তাদের জীবন আগমন ঘটে শুধুমাত্র পয়সার,
এই শিশু বয়সে পয়সা উপার্জনের ফলে সে বুঝতে পারে না যে তার আসল পথ কোনটা, এবং এই ভালো-খারাপের ছন্দে সে হারিয়ে যায় এক অজানা পথে,
এখন  লকডাউন আমরা জানি,
কিন্তু পাপী পেট যে লকডাউন মানেনা,
চাই তার শুধু দু’মুঠো পেট ভরে ভাত,
ঠিক এই কারণেই একটি মা
তার চিন্তারই জ্বালা প্রকাশ করেছেন আমাদের মত সংবাদমাধ্যমের কাছে । তার মুখে একটাই কথা , শুধু দু’মুঠো অন্ন তুললেন দিন আমার সন্তানের মুখে,
আজকে আমাদের এ খবরের মাধ্যমে আমরা এটাই জানাতে চাইছি যে বর্তমানে বিভিন্ন এনজিও এবং অন্যান্য সংস্থা আছে যারা লকডাউন এ বিভিন্ন স্তরের মানুষের মুখে অন্ন তুলে দিয়েছে, সমাজে অনেক প্রতিষ্ঠিত মানুষ রয়েছেন
আমাদের বিনীত অনুরোধ শুধুমাত্র এই প্রতিষ্ঠিত সমাজ এবং এই প্রতিষ্ঠিত মানুষদের কাছে যেন তারা সমাজের এই নিপীড়িত মানুষদের মুখে একটু অন্ন তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন,
যেন কোনো শিশুকে আর স্কুল ব্যাগ খুলে কোদাল না ধরতে হয়,তাহলে প্রতিষ্ঠিত হবে উন্নত সমাজ এবং শ্রেষ্ঠ পৃথিবী।
আমরা চাই সহৃদয় ব্যক্তিরা এগিয়ে আসুন । কারণ এদের ও ভালো থাকার প্রয়োজন আছে ।এদের ও প্রয়জন শিক্ষার আলো ও দুমুঠো আহার।

In the present age we all know that it is a punishable offense to convert a child laborer into a laborer,
Basically no parent wants their child to become a laborer, but only the lack of food builds up the story of a child’s bright future, the story of working hard and earning money in the past, despite all the benefits from the government. Not arriving properly, as a result they are trapped in a surprisingly hard-working magic,
Maybe for the convenience of their parents, they have chosen this path of earning money. The path in which money is less hurt more, as a result, all their sports, fun, muddy childhood and their life comes only with money,
Making money as a child means he doesn’t know what his real path is, and in this rhythm of good and bad he gets lost in an unknown way.
Now lockdown we know,
But the sinful stomach does not obey that lockdown,
All he wants is a handful of rice,
This is exactly why a mother
His thoughts have irritated the media like us. One word in his mouth, just two handfuls of food in the mouth of my child,
Today we want to inform you that there are various NGOs and other organizations who have put food in the mouths of different levels of people in lockdown, there are many established people in the society.
Our humble request is only to this established society and to these established people to make arrangements to put a little food in the mouths of these oppressed people of the society,
If no child has to open a school bag and hold a spade, then a developed society and a better world will be established.
We want kind people to come forward. Because they also need to be good.

Below Article Banner Area

About Samim Ali

Check Also

Bengal Covid Care initiative felicitates 50 NGOs of West Bengal

‘Bengal Covid Care Initiative’ felicitated 50 NGOs at a Press conference held at Press Club …

Bottom Banner Area