Below Header Banner Area
Above Article Banner Area

ইরফান-শোকের মধ্যেই চলে গেলন ঋষি কাপুর! শোকে বলিউড

ঋষি কাপুর দীর্ঘদিনই ক্যানসারে ভুগছিলেন। গত বছরই সেপ্টেম্বর মাসে তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে চিকিৎসা সেরে ফেরেন। সম্প্রতি দিল্লিতে শুটিং চলাকালে দূষণজনিত কারণে ঋষি অসুস্থ হয়ে পড়েন। ইরফান খানের পর এবার ঋষি কাপুর। রূপোলি জগতের আরও এক নক্ষত্রের পতন! প্রয়াত অভিনেতা ঋষি কাপুর। ৬৭ বছর বয়সে স্তব্ধ হয়ে গেল এক অধ্যায়ের।
বুধবারই রাতে প্রবল শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে  মুম্বইয়ের স্যার এইচ এন রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। অভিনেতার সঙ্গে হাসপাতালে ছিলেন স্ত্রী নীতু কাপুর। ঋষি কাপুরের দাদা রণধীর কাপুর জানিয়েছিলেন, ” হ্যাঁ, ঋষির হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার খবর সত্যি। ও ভালো নেই। এর আগেও একবার ওকে এই হাসপাতালে আনা হয়েছিল। আমিও একবার এখানে ভর্তি হয়েছিলাম। ও সুস্থ হয়ে যাবে। নীতু আছে ওর কাছে।”
কিন্তু এবার আর বাড়ি ফেরা হল না তাঁর। দীর্ঘদিন ধরেই মারণ কর্কট রোগ বাসা বেঁধেছিল তাঁর শরীরে।  ভাইয়ের অদ্ভূত মানসিক জোর, আর জীবনিশক্তির কাছে যে মারণ রোগও হার মানবে, দৃঢ় বিশ্বাস ছিল দাদার। কিন্তু অনিবার্যের কাছেও যে হার মানতে হয় কখনও কখনও! সব কিছুকে মিথ্যা করে চলে গেলেন এককালের ‘চকলেট বয়’ ঋষি কাপুর।
২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাস থেকে তিনি নিউ ইয়র্কে ছিলেন, সেখানে তাঁর ক্যানসারের চিকিৎসা চলছিল। ২০১৯-এর সেপ্টেম্বর মাসে তিনি স্ত্রী নীতু কাপুরের সঙ্গে সুস্থ হয়ে দেশে ফিরে আসেন। গত ফ্রেব্রুয়ারি মাসেও উনি দিল্লিতে বোনের ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। তখনও তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সুস্থ হয়ে ওঠেন। পরিবারের সদস্যরা আশা রেখেছিলেন এবার তিনি সুস্থ হয়ে ফিরে আসবেন। সংবাদমাধ্যমের কাছে জোর গলায় সেকথা জানিয়েওছিলেন রণধির কাপুর। তবে হাসপাতাল, কিংবা চিকিত্সকদের তরফে স্পষ্ট কিছু জানা যায়নি রাত পর্যন্তও। সকালেই এল অভিশপ্ত খবর। তাঁর প্রয়াণে শোকস্তব্ধ অমিতাভ বচ্চন। টুইটারে লিখছেন শুধু কয়েকটি শব্দ…”ঋষি কাপুর চলে গেলেন। আই এম ডেস্ট্রয়েড…”

Below Article Banner Area

About Desk

Check Also

Bengal Covid Care initiative felicitates 50 NGOs of West Bengal

‘Bengal Covid Care Initiative’ felicitated 50 NGOs at a Press conference held at Press Club …

Bottom Banner Area